fbpx

Sreelekha Mitra:”হ্যাঁ আমার ভুঁড়ি আছে!” জিমে গিয়ে নেটিজেনদের ক্ষোভ উগড়ে দিলেন শ্রীলেখা মিত্র

কোনও সামাজিক কান্ড হোক বা সাংস্কৃতিক মঞ্চ। শ্রীলেখা মিত্রের একটি মন্তব্য বরাদ্দই থাকে। ঠোঁটকাটা স্পষ্টবাদী অভিনেত্রী নিজের মন্তব্যকে সামনে রেখেই লাইম লাইটে আসেন।তবে সুনাম-দুর্নামের সমান ভাগীদার শ্রীলেখা। অনেকেই তাকে বলেন, ‘বাংলার কঙ্গনা রানাউত’। বিতর্কিত মন্তব্যের জন্যই হোক বা চেহারার পরিবর্তনের জন্যই হোক বাংলা টেলিভিশন দুনিয়ায় তিনি এখন ব্রাত্য, তবে সোশ্যাল মাধ্যমে নিজেকে ‘অ্যাক্টিভ’ রাখেন শ্রীলেখা। মাঝে মাঝেই মন্তব্য করে রীতিমতো বোমা ফাটান অভিনেত্রী।

একসময় নায়িকাদের মতো সুন্দরী ছিপছিপে তন্বী থাকলেও এখন অনেকটাই ওজন বেড়ে গিয়েছে শ্রীলেখার। কিন্তু পোশাকের ব্যাপারে কোনও গোঁড়ামি নেই তাঁর। উন্মুক্ত খোলামেলা পোশাকেই ক্যামেরার সামনে আসেন তিনি। আর তাতেই পেতে হয় কুরুচিকর মন্তব্যের রাশি।এসব মোটেই পরোয়া করেননা শ্রীলেখা। এ-দিন ইনস্টাগ্রামে দেওয়া রিলস ভিডিও থেকেই তা স্পষ্ট হয়ে গেল। জিমের ট্রাউজার ও ফিট টি-স পরে ক্যামেরার সামনেই একটি প্লেন আয়রন বার নিয়ে শারীরিক কসরতের নমুনা দেখাতে থাকেন। তিনি যে রোজই শরীর চর্চা করেন তা তার ওয়ার্কআউটের কৌশল দেখেই বোঝা যায়। কিন্তু তবু সত্বেও চেহারায় কেন কোন পরিবর্তন আসছে না অভিনেত্রীর। বাকি নায়িকাদের মতো রোগা হতে পারছেন না।


অনুরাগীরাও বলছেন এত কসরতের ফল কী হচ্ছে! অভিনেত্রীর অবশ্য স্পষ্ট জবাব, ‘হ্যাঁ আমার ভুঁড়ি আছে, খাতি পিতি ঘর কি হু’। তবে কাদের তির্যক মন্তব্য করলেন শ্রীলেখা। এখনকার সমস্ত নায়িকারাই নিজেদের স্লিম রাখার চেষ্টা করেন। তার জন্য কড়া ডায়েট মেনেই চলেন তাঁরা। শ্রীলেখা মিত্র অবশ্য নিজেকে কষ্ট দিয়ে কিছু করেন না। যেমন খাওয়া দাওয়া তেমনই শরীর চর্চা দুটোই সমান। একসময় অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র একটি কুরুচিকর মন্তব্য করে বলেন, ‘থলথলে বৌদি’ আজ কী তারই জবাব দিলেন বিতর্কিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা?

google-news-icon

লেটেস্ট খবর