fbpx

SSC Recruitment Scam: জীবনটা শুধু একা বাঁচার নয়! তৃণমূলের SSC কান্ডে ‘নীরব’ ঋতুপর্ণাকে নিশানা শ্রীলেখার

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলা রাজ্য জুড়ে উথাল-পাথাল পরিস্থিতি। ‘কোটি’ টাকা, গয়না ও চাকরিপ্রার্থীদের চোখের জল, ৫০০টা দিনের বাঁধ ভাঙা কষ্ট, টিভি খুললেই এই চিত্র এখন খুবই স্বাভাবিক। ক্রমাগত পার্থ-অর্পিতাকে নিয়ে টানাটানি। রাজ্য রাজনীতির যেন এক অন্ধকার অধ্যায়ের সম্মুখীন বঙ্গবাসী। তবে রাজনৈতিক টানাপোড়েন নয়। শিক্ষক নিয়োগ দু্র্নীতির এই আগুন থেকে বাদ পড়েননি সমাজের প্রথম শ্রেণীর ব্যাক্তিত্বরা। যাঁদের মানুষ চেনেন বুদ্ধিজীবি বলে। অপার জ্ঞান তাঁদের। কিন্তু রাজ্য সরকারে বেহাল দশায় মুখ খোলেননি অনেকেই, কেন এমন চুপ করে থাকা? প্রশ্ন নেটিজেনদের। 

তবে এই টানটান উত্তেজনার মাঝে যেন ক্ষোভের আগুন টলিপাড়াতেও। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের একটি মন্তব্যকে এদিন কটাক্ষ করে বসলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। উল্লেখ্য,  সম্প্রতি শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির মামলায় একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম তরফে প্রশ্ন করা হয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। রাজ্য জুড়ে চলা এই দুর্নীতির প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হয় তাঁর প্রতিক্রিয়া। ‘বঙ্গভূষণ’ পুরষ্কৃত এই তারকা বলেন, “বিষয়টি অত্যন্ত সংবেদনশীল। একটু সময় নিয়ে ভেবে উত্তর দেব।” কিন্তু সেই উত্তর নাকি আজও অধরা। 

অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের এই মন্তব্যেই যেন এক প্রকার ক্ষোভ উগড়ে দেন টলিপাড়া খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। এদিন তিনি খুব শান্ত চিত্তে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘এই পোস্ট অতন্ত ব্যাক্তিগতভাবে ভেব না ঋতু। আমি জানি, তুমি আমার থেকে অনেক অনেক অনেক বেশি সাফল্য অর্জন করেছ, তোমার পরিচিতের সংখ্যার কোনও শেষ নেই (এবং তাঁরা খুব শক্তিশালী)। কিন্তু রাজ্যের অবস্থায় এই উত্তরটা……..জীবনটা শুধু একা বাঁচার নয়, শুধু নিজের লাভের কথা ভাবার নয় তার থেকে অনেকটা বড়।’

তাঁর আরও সংযোজন, ‘একটু সময় নিয়ে দেখ, এসব চাকরি না পাওয়া ছেলেমেয়েদের কষ্ট, যদি উত্তরটা খুঁজে পাও। ভাল থেক।’ অভিনেত্রীর এমন মন্তব্যকে ঘিরে এদিন তোলপাড় নেটমাধ্যম। মানুষের মধ্যেও বেশ সাড়া ফেলেছে এই গোটা ঘটনা। 

google-news-icon

লেটেস্ট খবর