fbpx

পর্দায় এবার বঙ্কিমচন্দ্রের ‘আনন্দমঠ’! বাঙালি নয় দক্ষিণীর হাতেই ফুটে উঠবে ঐতিহ্য

আশ্বিনের প্রথম ছবি ১৭৭০-র মূল প্রেক্ষাপট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের আনন্দমঠ থেকে নেওয়া। আর এই দেখেই তাজ্জব সকলে।

অনীশ দে, কলকাতা: ভারতবর্ষের নানা ইতিহাস সম্পর্কে আমরা অবগত। কিন্তু সিনেমার পর্দায় ইতিহাসকে বিকৃত করার অভিযোগও উঠেছে। তবে এমনও ছবি রয়েছে যা ভারতীয় চলচ্চিত্রের নাম উজ্জ্বল করেছে বিশ্ব দরবারে। এমনকি সম্প্রতি রজমৌলি পরিচালিত ছবি আরআরআর আমেরিকায় যেভাবে রমরমিয়ে চলেছে, তা দেখে বিস্মিত অনেকে। আগেও ইতিহাস ধর্মী ছবি বানিয়েছেন রজামৌলি (SS Rajamouli)। আর প্রত্যেকটি ছবিই দর্শকদের খুবই পছন্দ হয়। রাজামৌলির (SS Rajamouli) বেশির ভাগ ছবির চিত্রনাট্য তাঁর বাবা বিজয়েন্দ্র প্রসাদ লিখেছেন। এবার রাজামৌলির সহকারী পরিচালক তাঁরই পথ অনুসরণ করতে চলেছেন।

gangaraju

দীর্ঘদিন রাজামৌলির (SS Rajamouli) সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন আশ্বিন গঙ্গারাজু (Ashwin Gangaraju)। রাজামৌলির ইগা, বাহুবলী ১ এবং বাহুবলী ২- এর সহকারী পরিচালকও ছিলেন তিনিই। তবে নিজের প্রথম ছবির গল্পের জন্য তিনি (Ashwin Gangaraju) কোনও দক্ষিণী লেখকের সাহায্য নেননি বরং এক বাঙালির লেখা গল্পই তাঁর ছবির প্রেক্ষাপট। আশ্বিনের প্রথম ছবি ১৭৭০-র মূল প্রেক্ষাপট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের (Bankim Chandra Chatterjee) আনন্দমঠ থেকে নেওয়া। আর এই দেখেই তাজ্জব সকলে। এত বছর আগে লেখা এক বাঙালির গল্পের উপর তৈরি হতে চলেছে একটি প্যান ইন্ডিয়ান ছবি, যা নিঃসন্দেহে সবার কাছে বিশেষ করে প্রত্যেক বাঙালির কাছে গর্বের।

1770 2

ছবির কাস্টিং সম্বন্ধে এখনও জানা যায়নি। তবে ছবির প্রেক্ষাপট যে সবার মধ্যে এক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে, তা বলাই বাহুল্য। গঙ্গারাজুর প্রথম ছবি আকাশবাণী, যা মুক্তি পায় ২০২১ সালে। ছবিটির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন সমস্ত ক্রিটিক। প্রথম ছবিটি খুব বেশি বাজেট নিয়ে তৈরি না হলেও তাঁর দ্বিতীয় ছবি প্রেক্ষাগৃহে লোক টানতে সক্ষম হবে, তেমনটাই মনে করছে নেটিজেনরা। ছবিটির চিত্রনাট্য অবশ্য রাজামৌলির বাবা বিজয়েন্দ্র লিখেছেন। আর সেই কারণেই এই ছবি ঘিরে আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী পরিচালক আশ্বিন। ছবিটি তামিল, তেলেগু, মালায়ালাম, কন্নড় এবং বাংলায় মুক্তি পাবে ছবিটি।

আজকের দিনে বড় মাপের ছবি প্রেক্ষাগৃহে রমরমিয়ে চলছে, তাই সেই ধরনের ছবি বানানোর দিকেই মন দিচ্ছেন পরিচালকরা। মূলত, ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট, তীব্র অনুভূতি এবং দেশের এবং দশের প্রতি ভালোবাসা মূলক ছবি এখন ব্যবসায়িক ভাবে সফল। তাই সেই ধরনের ছবিই বানাতে চান আশ্বিন, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। দক্ষিণী ছবি যে বিশ্বব্যাপী সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে, তা আমরা আগেই দেখেছি। সম্প্রতি বলিউড পরিচালক অনুরাগ কশ্যপ পর্যন্ত জানান, যে অস্কারের দৌড়ে যেতে পরে আরআরআর কারণ বিদেশের পরিচালকরা এই ছবি খুবই পছন্দ করেছেন। এমনকী মার্ভেলের ছবির চাইতেও এই ছবিটি তাদের বেশি ভালো লেগেছে বলে জানান পরিচালক অনুরাগ কশ্যপ।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর