fbpx

Afghanistan: ‘পাকিস্তান মূর্দাবাদ!’ নিরস্ত্র মিছিলে হঠাৎই গুলি, তালিব-তাণ্ডবে নিহত পাক-বিরোধীরা

ক্রমশ মন্ত্রিসভা গঠনের পথে এগোচ্ছে তালিবান(taliban)। জেহাদিদের পঞ্জশির দখলের পর সালেহ ও মাসুদ বাহিনীর এখন টিকে থাকা দায়। এমতাবস্থায় হার স্বীকার না করে মাথা তুলে দাঁড়াচ্ছেন আফগানরা(afghan)। আর তার মূল্য চোকাতে হচ্ছে প্রাণের বিনিময়ে! কাবুলের পর ইরান সীমান্তবর্তী হেরাটেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। পাকিস্তান(Pakistan) বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে নির্বিচারে উপর গুলি চালাল তালিব-সেনা(taliban)! মঙ্গলবার সন্ধ্যার ঘটনায় নিহত কমপক্ষে দুই, আহতের সঠিক সংখ্যা সম্পর্কে ধারণা নেই কারোরই।

Taliban open fire on Anti-Pakistan afghans in Herat,two dead,Anti-Pakistan Rage,ISIS in Afghanistan,Taliban in Afghanistan,Women's Protest,Anti-Pakistan Protest,পাকিস্তান বিরোধী ক্ষোভ,আফগানিস্তানে আইএসআইএস,আফগানিস্তানে তালিবান,মহিলাদের প্রতিবাদ,পাকিস্তান বিরোধী প্রতিবাদ

এদিকে সম্প্রতি আফগান মাটিতে পা রেখেছেন পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-র (ISI) প্রধান। আর তাতেই নতুন করে বেড়েছে উদ্বেগ। এমতাবস্থায় এবার কাবুলে পাকিস্তান (Pakistan) ও আইএসআই-এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে দেখা গেল হাজার হাজার আফগানকে। কারণ পঞ্জশির দখলে তালিবানদের সঙ্গে যোগ্য সঙ্গত দিতে দেখা গিয়েছে পাকিস্তানকেও।

Taliban open fire on Anti-Pakistan afghans in Herat,two dead,Anti-Pakistan Rage,ISIS in Afghanistan,Taliban in Afghanistan,Women's Protest,Anti-Pakistan Protest,পাকিস্তান বিরোধী ক্ষোভ,আফগানিস্তানে আইএসআইএস,আফগানিস্তানে তালিবান,মহিলাদের প্রতিবাদ,পাকিস্তান বিরোধী প্রতিবাদ

আফগান সংবাদসংস্থা টোলো নিউজ মোতাবেক, সোমবার আফগান আওয়ামের কাছে পাকিস্তান বিরোধিতার ডাক দিয়েছিলেন তালিব-বিরোধী জনগোষ্ঠী ‘নর্দার্ন অ্যালায়েন্স’-র কম্যান্ডার আহমেদ মাসুদ। আর তার পর থেকেই ‘ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট’-এর ডাকে দেশজুড়ে ধিকিধিকি জ্বলছে বিক্ষোভের আগুন। এরই মাঝে পঞ্জশির উপত্যকায় পাক সেনার উপস্থিত হওয়ার খবরে জোরালো হয়েছে পাক-বিরোধী আন্দোলন। তালিবানের পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানও যে তাদের ‘শত্রু’, তা আঁচ করেই পথে নামছেন শ’য়ে শ’য়ে আফগান।

Taliban open fire on Anti-Pakistan afghans in Herat,two dead,Anti-Pakistan Rage,ISIS in Afghanistan,Taliban in Afghanistan,Women's Protest,Anti-Pakistan Protest,পাকিস্তান বিরোধী ক্ষোভ,আফগানিস্তানে আইএসআইএস,আফগানিস্তানে তালিবান,মহিলাদের প্রতিবাদ,পাকিস্তান বিরোধী প্রতিবাদ

আফগান সূত্র অনুযায়ী, কাবুলের পাশাপাশি মাজার-ই-শরিফ, গজনি, জবল ও সিরাজেও চলেছে বিক্ষোভ। জানা যাচ্ছে, কাবুলের ন্যায় হেরাটের পুরুষদের পাশাপাশি বিক্ষোভের আওয়াজ তুলে সরব হয়েছিলেন মহিলারা। পাকিস্তান এবং আইএসআই বিরোধী স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে হেরাট। ‘অস্ত্র’ বলতে বিক্ষোভকারীদের হাতে ছিল শুধুই আফগানিস্তানের জাতীয় পতাকা। এমতাবস্থায় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে তালিবানদের একে-৪৭ গর্জন করে ওঠে! সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিয়োতে দেখা যায়, প্রথমে শূন্যে গুলি চালালেও তারপরেই বিক্ষোভকারীদের উপর গুলিবর্ষণ শুরু করে জেহাদিরা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর