fbpx

Horoscope Today: শিবের আরাধনা করেও মিলছে না ফল! এই বিশেষ সামগ্রীর ব্যবহার বৃদ্ধি করতে পারে ধন সমৃদ্ধি

মন্টি শীল, কলকাতা: সামনেই আসতে চলেছে শ্রাবণ মাস। আর এই শ্রাবণ মাস মানেই হল দেবাদিদেব মহাদেবের প্রিয় মাস। পুরাণ অনুসারে, এই দেবাদিদেব মহাদেবকেই সমগ্র জগতের সৃষ্টিকর্তা হিসেবে মনে করা হয়। এমনকী ব্রক্ষ্মা এবং বিষ্ণুর সৃষ্টিকর্তা স্বয়ং শিব বলেই বলেই মনে করা হয় পুরাণে। বলা হয়, দেবাদিদেব মহাদেব খুব সহজেই প্রসন্ন হন, এমনকী তাঁর আরাধনা করাও অত্যন্ত সহজ। তাই ভক্তমহলে তাঁর আরও এক নাম হল ভোলানাথ। আর তাই, কিছু লক্ষ্যণীয় বিষয় রয়েছে যেগুলো অবলম্বন করলে খুব শীঘ্রই প্রসন্ন করা যাবে দেবাদিদেব মহাদেবকে। শুধু তাই নয়, এই বিশেষ উপকরণ সহযোগ পুজো করলে পূর্ণ হবে আপনার সমস্ত মনোস্কামনা, আসবে ধন ও সমৃদ্ধি, পরিবারে আসবে সুখ স্বাচ্ছন্দ্য। তাহলে একনজরে দেখনিন সেই বিশেষ উপকরণ গুলি,

• দুধ এবং দই
সচরাচর দেখা যায় মহাদেবের আরাধনা করার সময় কাঁচা দুধ এবং দই এর ব্যবহার করা হয়। পুরান অনুসারে বলা হয়েছে, কাঁচা দুধ শীতল অবস্থায় পূজোতে ব্যবহার করলে মহাদেব শীতলতা লাভ করেন। যার ফলে ব্যক্তির জীবনে সুখ শান্তি ফিরে আসে। যদি এর সঙ্গে দই এর ব্যবহার করা যায় তাহলে ওই ব্যক্তির জীবনে জ্ঞান এবং বৈদ্ধিক ক্ষমতার উন্নতি হয়।

14c12

• ঘি
শাস্ত্র অনুসারে, দেব দেবদেবীর আরাধনার জন্য ঘি অত্যন্ত শুভ উপকরণ। আর তাই মহাদেবের আরাধনা করার সময় শিবলিঙ্গে ঘি অর্পন করলে ব্যক্তির জীবনে শক্তির সঞ্চয় ঘটে। শুধু তাই নয়, কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে খুব সহজেই মোকাবিলা করতে সমর্থ হন সেই ব্যক্তি।

• চন্দন
হিন্দু ধর্ম অনুসারে চন্দন হল পুজোর একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। কিন্তু জানেন কি, এই চন্দন মহাদেবের অত্যন্ত প্রিয়। পুরাণ মতে, শিবলিঙ্গে চন্দন অর্পন করলে আপনার ব্যক্তিত্বকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলবে এবং বাড়বে সম্মান।

• ভাঙ
ভাঙ হল দেবাদিদেব মহাদেবের খুব প্রিয়। আর তাই পুরাণ অনুসারে বলা হয়েছে, মহাদেবের পুজো করার সময় ভাঙ ব্যবহার করলে ব্যক্তির জীবনের সমস্ত দোষ-ত্রুটি দুর হয়ে যায় এবং সে মহাদেবের বিশেষ আশীর্বাদ লাভ করে।

14c13

• মধু
মহাদেবের আরাধনাতে মধু অর্পণ করলে ব্যক্তির কথাবার্তায় মাধুর্য দেখা দেয়। যার দরুন সে অধিক ধণ-সম্পত্তি এবং প্রতিপত্তির মালিকানা অর্জন করতে পারেন।

• আতর
দেবদেবীদের সন্তুষ্ট করার এক অন্যতম উপাদান হল আতর। শাস্ত্র অনুযায়ী বলা হয়েছে, যদি শিবলিঙ্গে সুগন্ধি আতর অর্পণ করা হয় তাহলে ওই ব্যক্তির বিচারধারা নির্মল হয়। যার দরুন সেই ব্যক্তি কোনও রকমের ভুল পদক্ষেপ গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকতে পারবেন। শুধু তাই নয়, মহাদেবের আরাধনা করার সময় আতর ব্যবহার করলে আপনার পারিবারিক পরিবেশ শুদ্ধ হয়ে ওঠে।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর