fbpx

Indrani Haldar: “দিতে পারিনি সন্তান সুখ!” দক্ষ অভিনেত্রী হয়েও ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে নিরাশ ইন্দ্রাণী হালদার

যোগ্য অভিনেত্রী হলেও তিনি ব্যর্থ একজন স্ত্রী হিসেবে! অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদারের মন্তব্যে শোরগোল নেটমাধ্যমে

মন্টি শীল, কলকাতা: সম্প্রতি বিনোদন জগতের দিকে নজর রাখলে দেখা যাবে, বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কারণে টলি তারকারা অনুরাগীদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। কিন্তু আজ যেই অভিনেত্রীর কথা বলা হতে চলেছে তিনি কেবলমাত্র ছোট পর্দাতেই নন, বড় পর্দাতেও সমান তালে তাঁর অসাধারণ অভিনয়ের দক্ষতা প্রমাণ করেছেন। যার ফলে এই অভিনেত্রী আজও দর্শকদের হৃদয়ে এক বিরাট অংশ জুড়ে রয়েছেন। হ্যাঁ তিনি আর কেউ নন, টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একজন বিশিষ্ট জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার ( Indrani Haldar )। জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী বাংলা সিনেমার পাশাপাশি টেলিভিশন ধারাবাহিক বিশেষত শ্রীময়ী ধারাবাহিকে অভিনয়ের দরুন দর্শকদের মন জয় করেছেন।

তবে শুধুমাত্র তাঁর অভিনয় কেরিয়ার নয়, জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার ( Indrani Haldar ) অনুরাগীদের মাঝে বিশেষ ভাবে আলোচিত থাকেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবনকে কেন্দ্র করেও। সম্প্রতি এক টেলিভিশন রিয়্যালিটি শো’তে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার। সেখানে তিনি প্রথমবার নিজের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে কিছু অকপট স্বীকারোক্তি প্রদান করলেন। যা ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়াতে রীতিমত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এমনকী তাঁর অনুরাগীদের মাঝে দেখা দিয়েছে তুমুল শোরগোল। কিন্তু এদিন কি এমন বললেন অভিনেত্রী?

17c42

সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটিতে দেখা গিয়েছে, অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদারের বিপরীতে সঞ্চালকের আসনে বসে ছিলেন জনপ্রিয় টলিউড অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। সেখানেই অভিনেতা তথা সঞ্চালক ইন্দ্রাণী হালদারকে প্রশ্ন করেন, ‘একজন স্ত্রী হিসেবে অভিনেত্রী নিজেকে দশের মধ্যে কত নম্বর দিতে চাইবেন?’ উত্তরের অভিনেত্রী বলেন, ‘দশে শূন্য। কারণ তিনি একজন খুব বাজে স্ত্রী। স্বামী কলকাতায় এলেই তিনি বলেন তাঁর শ্যুটিং আছে, খাবার গরম করে খেয়ে নিও, বাই বাই।’ শুধু তাই নয়, এদিন অভিনেত্রী বলেন ‘একজন প্রকৃত স্ত্রী হিসেবে যা যা করণীয় তাঁর কিছুই করতে পারেননা তিনি।’

এরই পাশাপাশি এদিন অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের শো’তে উপস্থিত থেকে বলেন, ‘তিনি তাঁর স্বামীকে একটি দামী জিনিস উপহার দিতে পারেননি। যার দরুন আজও আফসোস তাঁকে কুঁড়ে কুঁড়ে খায়। আর সেটা হল একজন সন্তানের বাবা হওয়ার সুখ।’ অভিনেত্রীর বক্তব্য অনুযায়ী, ‘তিনি কেরিয়ারের ব্যস্ততা, কাজ এবং দায়িত্ব সামলাতে গিয়ে তিনি তাঁর স্বামীকে এই উপহার দিতে ব্যর্থ হন। যদিও পরবর্তী সময়ে একবার চেষ্টা করলেও বয়সজনিত কারণে তা আর হয়ে ওঠেনি।’ সাম্প্রতিককালে অভিনেত্রী টেলিভিশন মেগাসিরিয়াল ‘শ্রীময়ী’ এবং ‘গোয়েন্দা গিন্নি’র মধ্যে দিয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। কিন্তু তাঁর এই বক্তব্যের দরুন অনুরাগীদের মাঝে এক নতুন আলোচনার সূত্রপাত ঘটল তা বলাই যায়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর