fbpx

Swastika Mukherjee: ‘নারী কেন্দ্রিক ছবি হলেই বাদের খাতায়’! জনপ্রিয় প্রযোজনা সংস্থাকে ধুয়ে দিলেন স্বাতিকা মুখোপাধ্যায়

প্রত্যুষা সরকার, কলকাতা: গত কয়েক বছর পর ফের বড়ো পর্দায় ফিরেছেন টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের ( Swastika Mukherjee )। বড়ো পর্দায় ফেরার পর গত সপ্তাহেই মুক্তি পেয়েছে তাঁর নতুন ছবি ‘শ্রীমতী’। মুক্তির আগে থেকেই তাই দর্শকদের মধ্যে আলাদা উন্মাদনা দেখা গিয়েছিল। অভিনেত্রী নিজেও তাই নিয়ে কোনও রকম কসুর রাখেননি। বলতে গেলে ছবি মুক্তির পর প্রায় প্রতিদিনই প্রায় হল ভিজিট করেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন চোখ রাখলেই যেন দেখা মেলে ‘শ্রীমতী’র রমরমা। এরই মাঝে বিস্ফোরক স্বস্তিকা।

ছবির শ্যুটিং থেকে মুক্তির আগে পর্যন্ত বিভিন্ন ভাবে শ্রীমতী’র প্রমোট করতে দেখা গেছে স্বস্তিকাকে। এ থেকেই বোঝা যায় এই ছবি নিয়ে কতটা এক্সাইটেড তিনি। তবে এর মধ্যে কী এমন ঘটলো যার কারণে হঠাৎ এরকম বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন অভিনেত্রী ( Swastika Mukherjee )। বাংলা ছবির হল না পাওয়া নিয়েই বা কেন প্রশ্ন তুললেন তিনি? তবে কী এবার হল পেলও না ‘শ্রীমতী’। এই নিয়েই উঠছে নানা প্রশ্ন।

img 20220716 122717

বাংলা ছবির হল না পাওয়া, এই কথা নতুন না। তবে অন্যান্য বারের মত সে দায় হল মালিকদের না দিয়ে, অভিনেত্রী দোষলেন ডিসট্রিবিউটরকে। আর সেই ডিসট্রিবিউটর আর কেউ নয়, এসভিএফ। শুক্রবার রাতে এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করলে অভিনেত্রী ( Swastika Mukherjee )। পোস্টটি পড়ার পর বোঝা যায়, গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে এসভিএফের ‘কুলের আচার’ ছবিকে নাম না করেই ইঙ্গিত করেছেন অভিনেত্রী। যেটাতে অভিনয় করছেন বিক্রম চট্টোপাধ্যায় ও মধুমিতা সরকার।

img 20220716 122809

পোস্টে স্বস্তিকা ( Swastika Mukherjee ) লিখেছেন, ‘বাংলা ছবি দেখুন, বাংলা ছবি সাপোর্ট করুন কিন্তু কে কীভাবে করবে? ডিসট্রিবিউটার যে ছবি চালাতে চাইবে সেই ছবি চলবে, নতুন প্রোডিউসার হলে তাকে কোনরকম জায়গা দেওয়া হবে না, উঠতি ডিরেক্টর হলে তাকে পাত্তা দেওয়ার দরকার নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘নারী কেন্দ্রীক ছবি হলে তো প্রথম থেকেই বাদ এর খাতায়। ভাল সেল হলেও, মানুষ উচ্ছসিত প্রশংসা করলেও, রিভিউ/ফিডব্যাক সব দারুণ হলেও তাতে কি? হল দেওয়া হবে না আর দেওয়া হলেও এমন শো টাইম দেওয়া হবে যাতে কেউ না যেতে পারে, সেল তলানি তে ঠ্যাকে এবং তৃতীয় সপ্তাহে ছবি উঠিয়ে দেওয়া যায়। শ্রীমতির কপালেও এটাই হল।’

img 20220716 130301

অভিনেত্রী ( Swastika Mukherjee )আরও জানালেন, প্রথম সপ্তাহে ‘শ্রীমতী’-র ১৭টা হল থাকলেও হঠাৎ দ্বিতীয় সপ্তাহে হলের সংখ্যা কমে ৪টে হয়ে গেছে। তাও আবার ছবির সমস্ত শো রাখা হয়েছে দুপুরে। এসভিএফের নাম উল্লেখ করেই স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘আমাদের ডিসট্রিবিউটর SVF। তাদের নিজেদের প্রযোজিত ছবি এল আজ, তাই সব ভাল শো তাদের, এটাই তো হয়ে এসেছে, এটাই হবে… পরের সপ্তাহে এমনিও উঠিয়ে দেবে। ব্যাস বাংলা ছবিকে এইভাবেই বাংলা ছবির ডিসট্রিবিউটররা সাপোর্ট করবে।’

google-news-icon

লেটেস্ট খবর