fbpx

Prosenjit-Deboshree: জাতীয় পুরস্কার পেতেই শুরু হিংসা, কোন কারণে বিচ্ছেদ ঘটেছিল প্রসেনজিৎ-দেবশ্রী সম্পর্কে?

প্রত্যুষা সরকার, কলকাতা: টলিউড হোক বা বলিউড, ইন্ডাস্ট্রি মানেই সেখানে গসিপ তো হবেই। ইন্ডাস্ট্রিতে সম্পর্ক ভাঙ্গা গড়া চলতেই থাকে, এই নিয়ে আলোচনা হলেও কয়েক দিনের মধ্যেই সবাই ভুলে যায় সেই কথা। তবে টলিউডের এমন দু’জন মানুষ আছেন যাঁদের বিচ্ছেদ আজ বহু বছর কেটে গেলেও তাঁদেরকে নিয়ে চর্চা এখনও শেষ হয়নি। এতক্ষণে হয়তো বুঝতে পেরেছেন কাদের কথা বলছি। হ্যাঁ, বাংলা চলচ্চিত্র জগতের প্রথম সারির দুজন জনপ্রিয় তারকা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়দেবশ্রী রায় ( Prosenjit-Deboshree )।

একটা সময় ছিল যখন টলি পাড়ার অন্যতম চর্চার বিষয়বস্তু ছিল প্রসেনজিৎ-দেবশ্রীর ( Prosenjit-Deboshree ) সম্পর্ক। বন্ধুত্ব দিয়েই শুরু হয় সম্পর্ক। এরপর ধীরে ধীরে একে অপরের সহকর্মী হয়ে ওঠেন তাঁরা। পর্দার সামনে হোক কিংবা পিছনে প্রায়ই একসঙ্গে দেখা যেত তাঁদের। এসবের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হতে বিশেষ সময় লাগেনি তাঁদের। বন্ধুত্ব থেকে শুরু হয় প্রেম আর সেই প্রেমের সম্পর্কই গড়িয়েছিল বিয়ে পর্যন্ত। তবে বেশিদিন আর একসঙ্গে থাকা হল কোথায়। বছর তিনেকের মধ্যেই বিচ্ছেদের পথ বেছে নেন তারা।

img 20220715 114549

নব্বইয়ের দশকের এই দুই তারকা ১৯৯২ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। শোনা যায়, বিয়ের কয়েকদিন পর থেকেই তাঁদের মাঝে শুরু হয়ে যায় অশান্তি। তিন বছরের মধ্যে ডিভোর্সের ( Prosenjit-Deboshree ) সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। মিডিয়াতে তাঁদের বিয়ের থেকেও বেশি চর্চিত হয়েছিল তাঁদের বিচ্ছেদ। তাঁদের বিচ্ছেদের চর্চার রেশ যে আজও চলছে, তা বলাই বাহুল্য। দেবশ্রী রায়ের সাথে বিচ্ছেদের দু’বছরের মধ্যেই ১৯৯৭ সালে অপর্ণা গুহ ঠাকুরতার সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন বুম্বাদা। তবে এ বিয়েও বেশি দিন টেকেনি তাঁর। ২০০২ সালেই বিচ্ছেদ হয় তাঁদের। বিচ্ছেদের বছরেই অর্পিতা চ্যাটার্জীর সাথে আবারো বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন অভিনেতা।

img 20220715 114336

বুম্বাদা ফের সংসার শুরু করলেও দেবশ্রী রায় আর নতুন করে সংসার কথার কথা ভাবেননি, রয়ে গিয়েছেন একাই। বিচ্ছেদের এত বছর পরও বারবার এই প্রাক্তন তারকা জুটিকে নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। তবে বিচ্ছেদের পর থেকেই মুখে কুলুক দুজনেরই ( Prosenjit-Deboshree )। একে অপরের পক্ষে কিংবা বিপক্ষে কোনওদিনই কোন মন্তব্য মিডিয়ার সামনে করেননি তাঁরা। বরং কোনও সাক্ষাৎকারে কিংবা অনুষ্ঠানে একে অপরের প্রসঙ্গে প্রশ্ন শুনলে সবসময়ই এড়িয়ে চলেন তাঁরা।

img 20220715 113814

দেবশ্রী রায় ও প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বিচ্ছেদের বিভিন্ন কারণ সামনে এসেছে সকলের। টলিপাড়ার অন্দরের গুঞ্জন থেকে জানা যায়, সেইসময় অভিনেত্রীর উপর কিছুটা হিংসা জন্মেছিল অভিনেতার ( Prosenjit-Deboshree )। ঋতুপর্ণ ঘোষ পরিচালিত ‘উনিশে এপ্রিল’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন দেবশ্রী রায়। সেই ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ও অভিনয় করেছিলেন। তবে অভিনেত্রী জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার পর থেকেই তাঁর উপর নাকি হিংসা জন্মেছিল অভিনেতার। সেই থেকেই অশান্তির শুরু, তারপরে বিচ্ছেদ।

img 20220715 113919

এখানেই শেষ নয়, তাদের বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে এটাও শোনা যায়, যে বিয়ের পর নাকি ক্রিকেটার সন্দীপ পাতিলের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন অভিনেত্রী। গুঞ্জন ওঠে, বিয়ের পরেই নাকি দেবশ্রী ( Prosenjit-Deboshree ) রায়কে অভিনয় ছেড়ে দিতে বলেছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় যা মানতে নারাজ ছিলেন তিনি সেই থেকেই অশান্তির শুরু। তবে এর মধ্যে কোন কথাটা সত্যি? আর কোনও কথাটা মিথ্যে! তা বলা মুশকিল। কারণ বিচ্ছেদের পর থেকে আজ পর্যন্ত মিডিয়ার সামনে প্রকাশ্যে কিছুই বলেননি তাঁরা।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর