fbpx

ধর্ষণে সুপার পাওয়ার আমেরিকা! আন্তর্জাতিক সমীক্ষায় প্রথম দশেই ছিল ভারতের নাম

ধর্ষণ নিয়ে সারা বিশ্বের দেশগুলির ওপর করা একটি সমীক্ষায় চাঞ্চল্যকর একটি তথ্য সামনে এসেছে। দেখা গেছে সবচেয়ে বেশি ধর্ষণের ঘটনার দিক দিয়ে প্রথম দশে স্থান পেয়েছে অধিকাংশ পশ্চিমি দেশ। গতবছর ডিসেম্বরে করা সমীক্ষা অনুযায়ী এশীয় কিছু দেশ ও আফ্রিকান দেশ ইথিওপিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়া বাকি সব দেশই ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকার উন্নত দেশ। অপর দিকে আশঙ্কাজনক ভাবে ভারত এই তালিকায় চতুর্থ স্থান লাভ করেছে।

সমস্ত দেশকে ছাপিয়ে ধর্ষণের এই তালিকায় শীর্ষ স্থান লাভ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আবার বিশ্বের সুখী দেশের তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশ সুইডেন রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। অনেকেই এই তালিকা দেখে রীতিমত চমকে গিয়েছেন। কারণ বিশ্বের উন্নততম দেশগুলিতে নারী সুরক্ষা নিয়ে ব্যাপক চর্চা সত্ত্বেও এই ফলাফল সত্যিই আশ্চর্যজনক সকলের কাছে।

Rape case,molestation,india,usa,sweden,canada,srilanka,index,survey,ধর্ষণ,যৌন নির্যাতন,ভারত,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র,কানাডা,সমীক্ষা,World Rape Ranking,tbc

তালিকায় প্ৰথম দশে রয়েছে যথাক্রমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ আফ্রিকা, সুইডেন, ভারত, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স,কানাডা, শ্রীলঙ্কা ও ইথিওপিয়া। এবার আসা যাক এই সকল দেশের ধর্ষণের ঘটনার দিকে! ইথিওপিয়া পশ্চিম আফ্রিকার একটি দেশ। ইউ এন এর রিপোর্ট বলছে এই দেশের ৬০% মেয়েই যৌন নির্যাতনের শিকার। এছাড়া মেয়েদের অপহরণ করে বিয়ে করার মত ঘৃণ্য প্রথাও রয়েছে এই দেশে। অষ্টম স্থান দখল করেছে উত্তর আমেরিকার দেশ কানাডা।

রিপোর্ট অনুযায়ী এই দেশে ১৭ জনের মধ্যে একজন মহিলা ধর্ষণের শিকার। প্রতি বছর নথিভুক্ত হওয়া ধর্ষণের সংখ্যা ২৬ লাখ যা মোট হওয়া ধর্ষণের মাত্র ৬ ভাগ। সপ্তম স্থানে থাকা ফ্রান্সে প্রতি বছর ৭৫০০০ ধর্ষণ নথিভুক্ত হয় যা প্ৰকৃত ঘটনার মাত্র ১০ ভাগ। একই ভাবে জার্মানিতে এ বছর ৬৭ লাখ ও ব্রিটেনে প্রতি বছরে ৮৫০০০ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

অপরদিকে সুইডেনে ২০০৯ সাল নাগাদ ধর্ষণের ঘটনা প্রায় ৯৬% বেড়ে যায়। এখনো এই দেশে ধর্ষণের সমস্যা যথেষ্ট বেশি। দক্ষিণ আফ্রিকায় গড়ে প্রায় ৬৫০০০ এর মত ধর্ষণ কেস নথিভুক্ত হয়। শিশু ধর্ষণে এই দেশ বিশ্বে শীর্ষে। সবচেয়ে চমকে দিয়ে আমেরিকা বর্তমানে ধর্ষণ গ্রাফে শীর্ষে। সেখানে প্রতি ৬ জনের মধ্যে একজন নারী ধর্ষিতা আবার প্রতি ৩৩ জন পুরুষের মধ্যে একজন অন্তত একবারের জন্য হলেও ধর্ষণের প্রচেষ্টা করেছে।

এশিয়ার দুই দেশ শ্রীলঙ্কা ও ভারত যথাক্রমে নবম এবং চতুর্থ স্থান দখল করেছে। শ্রীলঙ্কায় ১৪ শতাংশ পুরুষ কোনো না কোনো সময় ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। অপরদিকে ভারতে বছরে গড়ে ২৫০০০ এর কাছাকাছি ধর্ষণের কেস নথিভুক্ত হয়। কিন্তু প্রকৃত কেস তার থেকে অনেকটাই বেশি। আবার লজ্জাজনক ভাবে দেখা গেছে মোট ধর্ষণের ঘটনার ৯৮ শতাংশই ধর্ষিতার পরিচিত।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর