ব্যাগ খুলতেই অবাক কান্ড! বিমানবন্দরে আইপিএসের ব্যাগের কাহিনীতে মজেছে নেটিজেনরা

অহেলিকা দও, কলকাতা : বিমানে ( plane ) যাতায়াত করেছেন? তাহলে নিশ্চয়ই জানবেন সেখানকার সেফটি সিকিউরিটি ( safety sicurity ) কতটা বেশি ( high )। ৪-৫ বার চেকিং ( checking ) এর পর ফ্লাইটে ( flight ) ওঠার সুযোগ পায় মানুষ। এমনকি ছাড় নেই অফিসারদেরও ( officers )। বিমানবন্দরে চেকিং এর সময় সিনিয়র আইপিএস অফিসার অরুণ বোথরার ( Senior IPS officer Arun Bothra ) ব্যাগের ( bag ) ভিতরে পাওয়া পদার্থের ছবি পোস্ট ( post ) করলেই উঠে যায় টুইটের ( Viral Tweet ) ঝড়।

 

ওড়িশার পরিবহন কমিশনার ( Orissa Transport Commissioner ) জানান তার ব্যাগের ছবিটি তোলা হয়েছিল জয়পুর বিমানবন্দরে ( Jaipur Airport )। যেখানে নিরাপত্তা কর্মকর্তারা ( Security officials ) তাকে হাতের ব্যাগটি খুলতে বলেছিলেন। কারণ নিরাপত্তা ক্যামেরা ( Security cameras ) তার ব্যাগের ভেতরে অস্বাভাবিক কিছু দেখতে পেয়েছিল। নিরাপত্তা কর্মীরা ব্যাগটি খুলে দেখতে পান যে ব্যাগটি তাজা মটর ( Fresh peas ) দিয়ে ভরা যা প্রতি কেজি ৪০ টাকায় ( 40 per kg ) কেনা হয়েছিল।

ছবিটি শেয়ার করার সময় অফিসার একটি টুইটে ( tweet ) বলেছেন, “জয়পুর বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মীরা আমার হ্যান্ডব্যাগ খুলতে বলে।” বোথরা রসিকতা করছিলেন কিনা তা স্পষ্ট নয়, তবে তার পোস্টটি অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়া ( social media ) ব্যবহারকারীদের কাছে আনন্দদায়ক।

ছবিটি ৪৮,০০০ টিরও বেশি লাইক ( like ) এবং শত শত ভাইরাল ( Viral Tweet ) হয়েছে। এর ফলে আইএএস অফিসার অবনীশ শরণ একটি ফ্লাইটে শাকসবজি বহন করার নিজের অভিজ্ঞতা ( experience ) শেয়ার ( share ) করেছেন।

ফরেস্ট সার্ভিস অফিসার পারভীন কাসওয়ান ( Forest Service Officer Parveen Kaswan ) একটি হালকা টুইট করে বলেছিলেন যে, এটি মটর পাচারের ঘটনা কিনা ( Viral Tweet )।

একজন টুইটার ( Viral Tweet ) ব্যবহারকারীর নাম পাওয়ান দুরানি ( Pawan Durani ) বলেছিলেন যে, রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে প্রতি কেজি ৪০ টাকায় সবুজ মটর বিক্রি হচ্ছিল। আমি কিনেছিলাম ১০ কেজি। এই টুইটে মিঃ বোথরা লিখেছিলেন ‘সেম’ ৪০/১০।

ঘটনাটি বেশকিছু লোকজনকে অনুপ্রাণিত করেছিল।

আইএএস অফিসার প্রিয়াঙ্কা শুক্লা ( IAS officer Priyanka Shukla ) বলেছেন, “বিড়বিড় করে আমি একটা উদ্বেগ দিলাম।”

একজন টুইটার ( Viral Tweet ) ব্যবহারকারী বলেছেন, “আশা করি এই ঘটনা আপনার মনকে প্রভাবিত করেনি।”

 

অরুণ বোথরা একজন ওড়িশা ক্যাডার আইপিএস অফিসার যিনি টুইটারে অত্যন্ত অ্যাকটিভ। মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্মে ( microblogging platform ) তার ২.৩ লক্ষেরও বেশি ফলোয়ার রয়েছে যেখানে তার পোস্টগুলি মজার থেকে বেশি আকর্ষণীয়।

আরও পড়ুন….অমানবিক দৃষ্টি! অক্ষয়ের পাথর চোখে কেঁপে উঠেছে বক্স অফিস

আরও পড়ুন….মাত্র চৌদ্দ সেকেন্ডে পাজেল সমাধান, বিশ্ববাসীকে তাক লাগালেন চেন্নাইয়ের যুবক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button