fbpx

চাই পিৎজা, সঙ্গে প্রাণ ভরে শপিং! বিয়ের আগেই হবু বরের সঙ্গে চুক্তিতে কনে

অনীশ দে, কলকাতা: নিত্যদিন ইন্টারনেটে আমরা এমন অনেক বিয়ের সাক্ষী থাকি, যা চেনা জানা সংস্কার নিয়ে আমাদের ভাবতে বাধ্য করে। তা বিদায়ের সময় না কাঁদা হোক কিংবা নিজের স্ত্রীকে সবার সামনে প্রণাম করা। তাছাড়াও বৈদিক মত অনুযায়ী বিয়ে যেন আমাদের প্রজন্মকে এক নতুন দিশা দেখাচ্ছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক নববিবাহিত দম্পতির ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এই ভিডিওতে (Viral Wedding) সবার চোখ আকর্ষণ করে ‘কনট্র্যাক্ট’ বা ‘চুক্তি’। হ্যাঁ, বিয়ের পর কী কী করতে হবে সেই সমস্ত আবদারের এক কনট্র্যাক্ট সই করেন এই নবদম্পতি।

wedding 3

ওয়েডলক ফটোগ্রাফি নামের এক ইনস্টাগ্রাম পেজে এই ভিডিওটি আপলোড করা হয়। বিবাহের (Viral Wedding) এই চুক্তির ভিডিওটি আপলোড করে আসামের এই পেজটি লেখে, ‘বিবাহ চুক্তি’। ভিডিওতে দেখা যায় নববধূ শান্তি (Shanti) এবং পাত্র মিন্টু (Mintu) একটি চুক্তিতে সই করেন। এই চুক্তিতে নানাবিধ শর্ত ছিল। যার মধ্যে অন্যতম, মাসে একটি পিৎজা এবং ১৫ দিন অন্তর কেনাকাটা। মাত্র কয়েকদিন আগেই ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ৪০ মিলিয়ন ভিউ এবং ২ মিলিয়ন লাইক পেয়েছে।

wedding 4

এই অনন্য বিবাহ দেখে নেটিজেনরা দুভাগে বিভক্ত হয়েছে। একদিকে সবাই নিছক মজা হিসেবেই নিয়েছেন এই ভিডিওকে অন্যদিকে বাকিরা বলছেন এমন চুক্তি সই করা আদৌ কি যথার্থ? উল্লেখ্য ছেলেটির পক্ষ থেকেও কিছু দাবি জানানো হয়, যেমন প্রত্যেকদিন সারি পরা এবং লেট নাইট পার্টিতে ছাড় থাকলেও সেটি শুধু মিন্টুর সাথে। রোজ সারি পরাকে বাড়াবাড়ি হিসেবে দাগিয়েছেন মহিলারা। এমনকি নিজেদের হবু স্বামী ও স্ত্রীকে মেনশনও করেছেন অনেকে।

ইন্টারনেটে নিত্যদিন নতুন কীর্তি ভাইরাল হয়। কলকাতায় সমকামী বিবাহ হোক কিংবা গুজরাটে ক্ষমা বিন্দুর বিয়ে অথবা ঘোড়ায় চেপে বরের বাড়িতে স্ত্রীয়ের যাওয়া। কিন্তু কিছু ভিডিওতে মজার খাতিরে সহিংসতার প্রচারও হয়ে থাকে। বিশেষ করে ভারতবর্ষের অনেক বিয়ের অনুষ্ঠানেই আমরা দেখেছি পন দিতে না পারায় পাত্রের দুর্ব্যবহার। চুক্তি হোক কিন্তু ভালোবাসার, কিছুটা না হয় নিয়ম ভাঙল, কারন ভালোবাসা আর যুদ্ধে সবই ন্যায্য।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর