fbpx

পাঁচ বিধানসভা নির্বাচনের ফল কি তবে আসন্ন নির্বাচনের ইঙ্গিত দিচ্ছে? জেনে নিন পাঁচটি পয়েন্ট

বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে বিজেপি আবার প্রমাণ করলো জাতীয় স্তরে এখনও সবার পছন্দ সেই মোদী(Assembly Elections 2022)। এমনকি অমিত শাহের কূটনৈতিক বুদ্ধির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠেছে বিজেপির অন্দরমহল। গতকাল পাঁচ রাজ্যে নির্বাচনের ফল প্রকাশ হওয়ার পর ভারতবর্ষের রাজনৈতিক মানচিত্রে কয়েকটি বিশেষ পয়েন্ট উঠে আসছে।

জাতীয় স্তরে কংগ্রেসের পতন: মনিপুর, উত্তরাখণ্ড, উত্তর প্রদেশ ও গোয়া কোনো রাজ্যেই সরকার গড়ে ওঠা সম্ভব হয়ে উঠলো না কংগ্রেসের পক্ষে। কোনো বড় এবং হেভিওয়েট নেতার উপস্থিতি না থাকায় এরকম হাল বলে মনে করা হচ্ছে। প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর অনবরত প্রচার যে কোনো রকম কাজেই লাগেনি তা হারে হারে টের পাচ্ছে কংগ্রেস(Assembly Elections 2022)। কংগ্রেসের এই পতনের ভবিষ্যতবাণী অনেকে আগে থেকেই করে দিয়েছিলেন। কিন্তু দিন দিন এরকম ভাবে অবনতি হওয়ায় কংগ্রেস হাই কমান্ডের মাথায় হাত পরে গেছে।

আরও পড়ুন:নেই স্বামী-সন্তান! এভারগ্রিন রেখার কোটি টাকার সম্পত্তির উত্তরাধিকার হবেন কে?

বিজেপি ও মোদী ম্যাজিক: উত্তর প্রদেশে যোগীর বুলডোজারে গুড়িয়ে গেছে অখিলেশের সাইকেল। ৪০৩ টি আসনের মধ্যে ২৭০ টি আসনে বিপুল জয়ে জয়ী হয়েছে বিজেপি প্রার্থীরা(Assembly Elections 2022)। এছাড়াও বিরোধীদের দিয়ে মনিপুর, উত্তরাখণ্ড ছিনিয়ে নেওয়ার পর আগামী কয়েক বছরে বিজেপি যে এ দেশের একমাত্র সর্ববৃহৎ এবং শক্তিশালী দল তা আর কারোর বুঝতে বাকি নেই। এমনকি জাত, লিঙ্গ নির্বিশেষে উত্তর প্রদেশের মানুষ বেছে নিয়েছে মোদিকেই।

আরও পড়ুন:ঝাড়ুর বাতাসে গেরুয়া প্রতিক্রিয়া, কেজরিওয়ালের জয়ে খুশি মোদী

পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী মুখ কি তবে যোগী: জনপ্রিয়তার নিরিখে নরেন্দ্র মোদীর পর মানুষের একমাত্র পছন্দ যে যোগী আদিত্যনাথ সেটা যেনো এই বারের নির্বাচনে সুষ্পষ্ট হয়ে গেলো(Assembly Elections 2022)। অবশ্যই পার্টিতে মোদী ছাড়াও অনেক অনেক বর্ষীয়ান নেতা থাকলেও জনপ্রিয়তার নিরিখে এগিয়ে একমাত্র যোগী। এছাড়াও যোগীর ব্যক্তিত্ব বিজেপি কর্মীদের মধ্যে আগামী প্রধানমন্ত্রীর এক আসার আলো জাগিয়েছে। যার মূল্য রয়েছে নানান প্রকল্প, মফিয়ারাজ শেষ করা এবং কট্টর হিন্দুত্ব(Assembly Elections 2022)।

Assembly Elections Results 2022: ৫টির মধ্যে ৪টি রাজ্যেই ক্ষমতায় বিজেপি, কিন্তু তার কারণ কি

আরও পড়ুন:

আক্ষরিক অর্থে সর্বভারতীয় দল হয়ে উঠলো আপ: আকালি দল এবং কংগ্রেসের মত দুজন পুরনো প্রদিদ্বন্দিদের সাথে মাঠে নেমেও ৯২ টি আসন নিজের ঝুলিতে ভরে আপ(Assembly Elections 2022)। ১৯৬৭- র পরে কোনো দল বিধানসভা নির্বাচনে ৯০ টির বেশি আসন পায়নি। এতে পরিষ্কার হয়ে গেলো মোদীর পর সর্বভারতীয় স্তরে গ্রহণযোগ্যতা আছে একমাত্র আম আদমি পার্টির। পাঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনী প্রচারে অরবিন্দ কেজরিওয়াল বিশেষ ভাবে জোর দেন সমস্ত স্তরে শিক্ষার প্রসারের দিকে(Assembly Elections 2022)।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর