fbpx

Jashojeet Banerjee: রাজার নাকি মুখবন্ধ! ছোট্ট ‛জোজো’ রাজনৈতিক কবিতা পড়ে হতবাক বাবা জয়জিৎ

সম্প্রতি শারীরিক অসুস্থতার কারণে খুব ভুগেছেন ছোট্ট এই অভিনেতা। দশম শ্রেণীর ছাত্র যশোজিতকে ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। ডেঙ্গুতে কাবু যশোজিতের রক্তে প্লেটলেট সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছিল ৩০,০০০।

জয়িতা চৌধুরি,কলকাতাঃ ‘অ্যাডভেঞ্চার্স অফ জোজো’ ( Adventures of Jojo ) ছবির ছোট্ট জোজোকে মনে পরে? দুষ্টু জোজোর মিষ্টি অভিনয় দাগ কেটেছিল দর্শকদের মনে। জীবনের প্রথম ছবিই তাঁকে নিয়ে গিয়েছিল জনপ্রিয়তার শীর্ষে। ছোট্ট ছেলেটির অভিনয় দক্ষতাও প্রশংসিত হয়েছিল টলিপাড়ার ( Tollywood ) বিভিন্ন মহলে। তবে জানেন কি তাঁর আসল পরিচয় কি? জোজো ওরফে যশোজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ( Jashijeet Banerjee ) বাবা টলিউডের নামজাদা অভিনেতা জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ( Joyjit Banerjee )।

সম্প্রতি শারীরিক অসুস্থতার কারণে খুব ভুগেছেন ছোট্ট এই অভিনেতা। দশম শ্রেণীর ছাত্র যশোজিতকে ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। ডেঙ্গুতে কাবু যশোজিতের রক্তে প্লেটলেট সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছিল ৩০,০০০। তবে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন খুদে এই অভিনেতা। এবং ফিরেই লিখে ফেলেছে গোটা আস্ত কবিতা। যে কবিতার প্রথম কয়েক লাইন – “বসন্তে ফোটে ফুল, এই বার কেন ফুটল না? রেশনের দোকানে অন্ন জোটে, এইবার কেন জুটল না? যেই রাজা প্রতিশ্রুতি দিত, আজ তার মুখ বন্ধ, জনগণ তো দেখতে পেত, এইবারে কেন অন্ধ?”

jojo
খুদে অভিনেতার বাবা জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, হাসপাতাল থেকে ফিরে ঘরের এককোণে বসে কবিতা লিখতে শুরু করেন। তাঁকে জিজ্ঞেসা করলে, খুদে তাঁর বাবাকে জানন কিছু একটা লিখছেন। তারপর সামাজিক মাধ্যমে সেই কবিতাই প্রকাশ করেন জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। ক্লাস টেনের ছেলের পরিণতমনস্ক কবিতা দেখে নেটিজেনরা বাহবা জানান, আশীর্বাদও করেন ছোট্ট অভিনেতাকে। কবিতা পড়ে খুশি অভিনেতার বাবাও। বাংলার প্রথম সারির এক সংবাদমাধ্যমকে জয়জিৎ জানিয়েছেন,‘আমি খুবই খুশি হয়েছি যে ও এটা লিখেছে। তবে প্রশ্নও জাগছে, ছেলে কী আমার কবি হয়ে গেল? ও কবি হলে খাবে কী? আমার তো সেই চিন্তাই আসছে মনে…’

jojo 2

কবিতায় যোশোজিত লিখেছেন, ‘কোথাও মানুষ শোষণ করছে, কোথাও সে অন্নদাতা।‘ বছর পনেরোর যশোজিতের কবিতায় অনেকে রাজনীতির গন্ধ খুঁজে পেয়েছেন। এ প্রসঙ্গে অভিনেতার বাবা জানান, এই বয়সে অনেক ছেলেমেয়েদের মনেই রাজনীতি নিয়ে কৌতূহল জাগে। তাঁর ছেলের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। বছর পনেরোর ছেলেটি এই বয়স থেকে রাজনীতি নিয়ে চর্চাও করে। তিনি আরও জানান, বড় হয়ে তাঁর ছেলে পলিটিক্যাল অ্যানালিস্ট’ কিংবা ‘রাজনৈতিক বিশ্লেষক’ হতে চায়।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর