fbpx

“ওরা তো লবিবাজি করে..!” রাঘব-ইমনকে দেখেই অতীতের কথা তুলে রাগে ফুঁসে উঠল সারেগামাপা ভক্তরা

অনীশ দে, কলকাতা: ভারতীয় টেলিভিশনে এমন রিয়ালিটি শো খুব কম আছে যা প্রায় ২০ বছর ধরে চলে আসছে। সেই অনুষ্ঠানের নাম সা রে গা মা পা। হিন্দি তথা বাংলা এবং অন্যান্য ভাষাতেও সমান জনপ্রিয় এই শো। এমনকি শ্রেয়া ঘোষালের মত একজন গায়িকার হাতেখড়ি এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে। বাংলাতে এই প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠানের ভক্ত ক্রমেই বেড়ে চলেছে। বিশেষ করে ২০১৫ সালের পর এই শোয়ের খ্যাতি এখন গগনচুম্বী। ১১ জুন থেকে শুরু হবে এই শো-এর নতুন সিজন। যা ঘিরে উচ্ছসিত বাঙালি দর্শক।

১ বছর পর আবার শুরু হতে চলেছে সারেগামাপা বাংলা। প্রথম পর্বের অডিশন দিয়ে শুরু হল নতুন সিজন। অডিশনে যারা নির্বাচিত হয়েছে এবার তাদের দেখা যাবে মূলমঞ্চে। আর সেখানেই শুরু হবে হাড্ডাহাড্ডি গানের লড়াই। গতবারের তুলনায় এবার লড়াই জমবে আরও বেশি। কারণ পূর্ববর্তী সিজনে প্রতিযোগীদের তালিম দিয়ে বিজেতার আসন পর্যন্ত সাহায্য করেছেন জন্য ৩ জন গুরু। সেখানে এবার উপস্থিত রয়েছেন পাঁচজন। আগের বারের মত এইবারও যথারীতি উপস্থিত রয়েছে মনোময় ভট্টাচার্য্য (Monomoy Bhattacharya), ইমন চক্রবর্তী (Iman Chakraborty) এবং রাঘব চট্টোপাধ্যায় (Raghab Chatterjee)। এছাড়াও এবারে থাকছেন আরও দুজন, জোজো মুখার্জী এবং রথিজিৎ ভট্টাচার্য।

zee bangla 2

বিচারকের আসনে থাকছেন বলিউডের অন্যতম সুরকার শান্তুনু মৈত্র (Santanu Moitra), শ্রীকান্ত আচার্য (Srikanto Acharya) এবং রিচা শর্মা (Richa Sharma)। তবে নতুন সিজনে সবার নজর গুরুজির আসন, যেখানে এবারে বসতে চলেছেন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী (Pandit Ajay Chakraborty)। প্রতিযোগীদের গান শুনে অতি গুরুত্বপূর্ণ মতামত দেবেন পন্ডিতজি। এই সিজনের প্রথম পর্বে সুরের রানী লতা মঙ্গেশকর, গিতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় এবং সুর সম্রাট শিবকুমার শর্মার উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধার্ঘ্য জানান পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী। প্রথম এপিসোডে দেখা গিয়েছে প্রথম তিনজন প্রতিযোগীকে।

saregamapa 2

ভিন্ন ঘরানার গানে বিচারকদের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন তারা। কিন্তু দর্শকদের মধ্যে একাংশ ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছেন। কারণ বিচারকমন্ডলীতে ইমন ও রাঘবের উপস্থিতি। এমনকি লবিবাজির মত গুরুতর অভিযোগ আনা হয় এই দুই গায়ক গায়িকার বিরুদ্ধে। অনেকে বলছেন এই অনুষ্ঠানে পক্ষপাতের প্রমাণ মিলেছে। আসলে গতবার সরেগামাপা বিজেতা ছিল অর্কদীপ মিশ্র যিনি কিনা ছিলেন ইমনের দলে।

zee bangla

শুধু তাই নয় এই অর্কদীপ ছিলেন ইমনের গুরুভাইও। আর এই তথ্য জানার পর থেকে ইমনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ তুলেছিলেন নেটিজেনরা। অবশ্য ইমন সেই অভিযোগকে নস্যাৎ করে দেন। ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে নিজের বক্তব্য রাখেন তিনি। কিন্তু সে গুরে বালি। ইমনের এই লাইভের পর তাকে নিয়ে শুরু হয় ট্রোলিং, বাদ যাননি রাঘবও।

google-news-icon

লেটেস্ট খবর